Press Release
BASIS in Media
Current News
Press Kit
Upcoming Events
18 Nov 2017
মোস্তাফা জব্বারকে ডব্লিউইউবির আজীবন সম্মাননা
04 Nov 2017
বেসিসের শিশু প্রোগ্রামিং কার্যক্রমে ব্যাপক আগ্রহ
03 Nov 2017
ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারে ডিজিটাল দক্ষতাও চাই
01 Nov 2017
বেসিসের অতিরিক্ত সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত
31 Oct 2017
ডিজিটাল দক্ষতা ছাড়া সাধারণ শিক্ষায় কোন পেশা হবেনা : মোস্তাফা জব্বার
More News
Home » Industry News » Details
15 May 2012
BASIS proposal for VAT exemption on E-commerce services

আসন্ন বাজেটে ই-কমার্সভিত্তিক পণ্য ও সেবা ভ্যাটের আওতামুক্ত রাখার প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)। বাজেটকে কেন্দ্র করে খাতসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রস্তাব এরই মধ্যে অর্থমন্ত্রী ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে জানিয়েছে বেসিস।
প্রাথমিকভাবে তিন-পাঁচ বছরের জন্য ই-কমার্সের সব ধরনের লেনদেনের ওপর থেকে খুচরা পর্যায়ে মূল্য সংযোজন কর প্রত্যাহারের প্রস্তাব করেছে সংগঠনটি। এ ছাড়া স্বল্প মূল্যে ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ বাড়াতে ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর ধার্য ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বেসিস।
বর্তমানে ভ্যাট অব্যাহতির তালিকায় আমদানি ও উত্পাদন পর্যায়ে সফটওয়্যার ভ্যাট মওকুফের আওতায় আছে। তবে সিডি (কম্প্যাক্ট ডিস্ক) বা অন্য কোনো স্টোরেজ ডিভাইসে সংরক্ষিত সফটওয়্যার ছাড়া এ সুবিধা প্রয়োগের ক্ষেত্রে জটিলতা রয়েছে। সফটওয়্যারকে দৃশ্যমান পণ্যের পরিবর্তে সেবা হিসেবে বিবেচনা করাই সমীচীন ও যথার্থ হবে বলে মনে করছে সংগঠনটি। 
সফটওয়্যার ও আইটিইএসের জন্য নতুন সার্ভিস কোড ঘোষণার দাবি জানিয়েছে বেসিস। এ কোড ভ্যাট নিবন্ধন বা তালিকাভুক্তির সময় ব্যবহার করতে পারবে প্রতিষ্ঠানগুলো। বর্তমানে যথার্থ সার্ভিস কোড প্রযোজ্য না থাকায় এ খাতের প্রতিষ্ঠানগুলো ভ্যাট নিবন্ধন এবং এ সম্পর্কিত তাদের বাণিজ্যিক দলিলপত্র সঠিকভাবে সংরক্ষণ করতে পারছে না। একই সঙ্গে বর্তমানে স্টোরেজ সফটওয়্যার পণ্যে ভ্যাট মওকুফের বিষয়টি প্রস্তাবিত নতুন সার্ভিস কোডের আওতায় দেয়া সেবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য করার প্রস্তাব করেছে বেসিস।
জাতীয় আইসিটি নীতিমালা ২০০৯-এর ১৫৯ নম্বর অনুচ্ছেদে আইসিটি শিল্প উন্নয়ন তহবিল গঠনের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ৭০০ কোটি টাকার ১০ শতাংশ বরাদ্দ দেয়ার প্রস্তাব করেছে বেসিস। একই সঙ্গে আইসিটি শিল্প উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠনের জন্য আবারও প্রস্তাব করা হয়েছে।
বিশ্ববিদ্যালয় ও তথ্যপ্রযুক্তিশিল্পের মধ্যে একটি মেলবন্ধন গড়ে তোলার লক্ষ্যে বেসিস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টের (বিআইটিএম) মাধ্যমে আগামী দুই বছরে ১০ হাজার দক্ষ তথ্য-প্রযুক্তি পেশাজীবী তৈরির পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। এ ক্র্যাশ ট্রেনিং প্রোগ্রামের জন্য ৫০ কোটি টাকার থোক বরাদ্দ রাখার প্রস্তাব করেছে বেসিস।

Source:http://www.bonikbarta.com

Share |

User ID
Password
Can't login?

Copyright © 2017 BASIS. All rights reserved.